মেদ ঝরাতে ঘরোয়া ম্যাজিক

0
829

তাপমাত্রার পারদ বেড়েই চলেছে। এই গরমে শরীরচর্চার কথা বললে কার না মাথা গরম হয়! কিন্তু গরম বলে হাত পা ছাড়া দিলে ‘ওজন’ কি আর শুনবে সেকথা। আপন মনে সে বেড়েই চলবে। তাই শরীরচর্চা বাদ দিয়ে রোগা থাকার ফর্মূলা আজকের ডায়েটের খাতায়। এমন কিছু ম্যাজিক ড্রিঙ্কের নাম, যা খেলে ওজন তো বাড়বেই না আর ত্বকের ঔজ্জ্বল্যও বাড়বে বহুগুণ।

১. এই তালিকায় প্রথমেই নাম নিঃসন্দেহে জল। এই গরমে দিনে কম করে ৩ থেকে ৪ লিটার জল শরীরে যাওয়া আবশ্যক। জল শরীরের অতিরিক্ত টক্সিন বার করে দেন। তবে ত্বক ভালো থাকে।

২. যা গরম পড়েছে তাতে লেবুর সরবতই গরমে সব থেকে উপকারী। তাই বাজার চলতি ঠাণ্ডা পানীয়রের বদলে লেবু সরবতের হাত ধরে চলুন এই গরমে পথ। তবে বরফ না মেশালেন ভালো।

৩. পুদিনা পাতার সরবতও খেতে পারেন। প্রথমে পুদিনা পাতা সারারাত জলে ভিজিয়ে রাখো। পরেরদিন তা ছেঁকে নিয়ে জলটা খান। এতে গরমে শরীর ঠাণ্ডা থাকে তো বটেই সঙ্গে মন-মেজাজও থাকে ফুরফুরে। আর মন ও স্বাস্থ্য ভালো থাকলে ত্বকে উজ্জ্জ্বলতা আসে এমনিতেই। সঙ্গে ভালো হজমও হবে।

৪. গরমে দুধ-চিনি দিয়ে কড়া চা খাওয়ার পাট চুকিয়ে, ত্বকের ঔজ্জ্বল্য বাড়াতে ভরসা রাখো গ্রিন টি বা উলং টি-র ওপর। এই চা শরীরে ভরপুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট আনার পাশাপাশি ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতেও সাহায্য করে। তবে খুব বেশি নয়। দিনে দু’বার গ্রিন টি খান।

৫. গরমে প্রতিদিন ডাবের জল খাওয়ার চেষ্ঠা করুন। এমনিতেই গরমে ডাবের জল খেতে বলে ডাক্তাররা। তবে শুধু শরীরের হাজার-একটা রোগ উপসম নয়। ডাবের জল কিন্তু নিষ্প্রাণ ত্বকে প্রাণ ফেরায়।

৬. অ্যালোভেরার জুস খেতে পারেন গরমে। অ্যালোভেরার শুধু ত্বকেত জন্যই ভালো তাই নয়! ওজন কমাতেও এর বেশ নাম ডাক। তাই অবশ্যই এই গরমে অ্যালোভারাকে বন্ধু করতে পারেন। বাজারে বিভিন্ন সংস্থার অ্যালোভেরা জুস পাওয়া যায়। আপনি চাইলে বাড়িতেও বানিয়ে নিতে পারেন।

৭. যে কোনও টাটকা সবজির রস এই সময় খেলে যেমন আপনার ওজন নিয়ন্ত্রণে থাকবে তেমনই স্কিনের উজ্জলতা বাড়বে তরতর করে।

তা হলে আর অপেক্ষা কীসের। এই গরমে আপন করে নিনি এই ৭টি পানীয়। আর গরমের বিউটি কুইন হয়ে উঠুন আপনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here