দরিদ্র জনগোষ্ঠী ও কর্মহীন মানুষের মাঝে খাদ্য সহায়তা দিয়েছে ফেনী জেলা পরিষদ

0
141

বিশেষ প্রতিনিধি :
ফেনী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আজিজ আহম্মদ চৌধুরী বলেন, দেশে বর্তমানে মহাসংক্রমণ রোগের আবির্ভাব হয়েছে। এ পরিস্থিতিতে সরকার নীতিমালা তৈরি করে দিয়েছে। এটি করোনাপরিস্থিতিতে সহায়ক শক্তি হিসেবে কাজ করছে। আশা করি এ সংক্রমণ ব্যাধিও প্রতিরোধ করা যাবে। সরকারের পাশাপাশি জেলা পরিষদের নিজস্ব অর্থায়নে কর্মহীন মানুষের মাঝে ত্রাণ সহায়তা দেয়া হচ্ছে। মানুষ যেন অভুক্ত না থাকে।

তিনি বলেন, প্রায় ৬০ লাখ টাকার মালামাল সরবরাহ করে মানুষের দ্বারে দ্বারে খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দেয়া হচ্ছে। আজিজ আহম্মদ চৌধুরী বলেন, করোনাপরিস্থিতির আগে দেশের অর্থনৈতিক চালিকা শক্তি ছিল খুব ভাল। এ দূর্যোগের কারণে অর্থনীতি দারুণভাবে হোঁচট খেয়েছে। আশা করি একদিন আমরা সংক্রমণ ব্যাধি পরাভুত করে উত্তরণ ঘটাবো। এর মধ্যে দিয়ে আর্থিক সংকটও কেটে যাবে জীবনযাত্রায় স্বাভাবিক গতি ফিরবে।

সোমবার, ৪ মে সকালে ফেনী জেলা পরিষদের নিজস্ব তহবিল (রাজস্ব) থেকে দরিদ্র জনগোষ্ঠী ও কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষের মাঝে খাদ্য সহায়তা বিতরণকালে তিনি এসব কথা বলেন।

জেলা পরিষদ সূত্র জানায়, বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে ফেনী জেলার দরিদ্র জনগোষ্ঠী ও কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষের মাঝে খাদ্য সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে সম্প্রতি এক সভায় সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

প্রতি ইউনিয়নে ১০০ করে ৪৩ ইউনিয়নে ৪৩০০ জন, ফেনী পৌরসভার ৫০০ জন, জেলার অপর ৪টি পৌরসভার জন্য ১০০ করে ৪০০ জন। মোট ৫ হাজার ৩০০ জনের মাঝে খাদ্য সহায়তা বিতরণ করা হবে।

খাদ্য সহায়তা হিসেবে রয়েছে চাল ১০ কেজি, মসুর ডাল ১ কেজি, সয়াবিন ১ কেজি, লবণ ১ কেজি, চিনি ১ কেজি ও আলু ২ কেজি।

জেলার বিভিন্ন উপজেলার সাথে সমন্বয় করে এ খাদ্য সহায়তা বিতরণ করা হচ্ছে। বিতরণ উদ্বোধনকালে উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী আবু দাউদ মো. গোলাম মোস্তফা, জেলা পরিষদের সদস্য মাহবুবুল হক লিটন, নুরুল আফছার আপন, মোসলেহ উদ্দিন হাজারী বাদল, কাজিরবাগ ইউপি চেয়ারম্যান এডভোকেট কাজী বুলবুল আহমেদ সোহাগ প্রমুখ।

সোমবার প্রথম পর্যায়ে সদর উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন, একটি পৌরসভায় জেলা পরিষদের ১০টি ওয়ার্ডে ৯০০ জনের মাঝে বিতরণ করা হবে। ত্রাণ বিতরণ কাজে সহযোগিতা করছেন জেলা পরিষদের সদস্যবৃন্দ।

-এম এস আই এস 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here