তৃতীয় দফায়ও করোনা পজিটিভ মোহাম্মদ শাহরিয়ার

0
80

গ্রামীণ টাইমস: জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার তৃতীয় দফায় করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) পজিটিভ হয়েছেন। প্রথম সংক্রমিত হওয়ার ১৭ দিন পর আবারও তার পরীক্ষা করানো হলে এ রিপোর্ট আসে। তিনি হাসপাতালে ভর্তি হয়ে আইসোলেশন ওয়ার্ডে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

রবিবার (৩১ মে) সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

শাহরিয়ারের ঘনিষ্ট একজন জানান, ২৭ মে থেকে তিনি বেশি অসুস্থ হয়ে পড়েন। শ্বাসকষ্ট হচ্ছিল। শরীর ব্যথাসহ বেশ কিছু সমস্যা দেখা দেয়। অবস্থা বেশি খারাপ হওয়ায় গত ২৮ মে রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। প্রথমে সিসিইউতে রাখা হয়। অবস্থার উন্নতি হওয়ায় আইসোলেশন ওয়ার্ডে স্থানান্তর করা হয়। সবশেষে ৩০ মে তৃতীয় দফায় করোনাভাইরাসের পরীক্ষা করানো হলে তার ফলও পজিটিভ আসে।

প্রথমে গত ১৩ মে করোনার টেস্টে অধিদফতরের আলোচিত এ কর্মকর্তার পজিটিভ রিপোর্ট আসার পর তিনি হোম কোয়ারেন্টাইনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। গত ২০ মে তার স্ত্রী তানজিনা সুলতানা এবং মেয়ে তাইফা নূহা আশী (১২) ও ছেলে তানজিন শাহরিয়ার আরিফের (১০) করোনা টেস্টের রিপোর্টও পজিটিভ আসে। তারাও এখন বাসায় হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন।

এরপর গত ২৬ মে দ্বিতীয় দফায় রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) কোভিড-১৯ টেস্ট করানো হলে শাহরিয়ারের রিপোর্ট পজিটিভ আসে। পরে তাকে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পরামর্শ দেন চিকিৎসকরা।

তখন মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার বলেন, সিএমএইচে গত ২৪ মে কোভিড-১৯ টেস্ট করি। আজ রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। এছাড়া সিটি স্ক্যান ও এক্স-রে করিয়েছি। ফুসফুসে সংক্রমণ দেখা দিয়েছে। সিএমএইচের ডা. ব্রিগেডিয়ার হাবিব সাহেবের পরামর্শে চিকিৎসা নিচ্ছি। তিনি আমাকে হাসপাতালে ভর্তি হতে বলেছেন।

করোনা পজিটিভ পরিবারের অন্য সদস্যরা অর্থাৎ তার স্ত্রী ও দুই সন্তান ভালো আছেন বলেও জানান মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার।

এদিকে ভোক্তা অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, এখন পর্যন্ত অধিদফতরের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) বাবলু কুমার সাহাসহ মোট ১৫ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

বাবলু কুমার সাহা ও মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার ছাড়া বাকিরা হলেন- উপপরিচালক আতিয়া সুলতানা, আফরোজা রহমান, সহকারী পরিচালক শাহনাজ সুলতানা, রজবী নাহার রজনী, তাহমিনা বেগম, রোজিনা সুলতানা, মাহমুদা আক্তার, অধিদফতরের সহকারী হিসাব রক্ষক জাহাঙ্গীর আলম, নমুনা সংগ্রহকারী আব্দুল কুদ্দুছ, অফিস সহকারী-কাম-কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক আব্দুল ওয়াহেদ, মহাপরিচালকের গাড়িচালক সোহেল আহমেদ, প্রধান কার্যালয়ের গাড়িচালক মিলিয়া খানম এবং ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের গাড়িচালক মো. শরীফ মিয়া।

-এমএসআইএস

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here