করোনার পর জয় দিয়ে শুরু বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের

0
25

গ্রামীণ টাইমস: প্রথম ওয়ানডেতে সফরকারী ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৬ উইকেটে হারিয়ে সিরিজে শুভ সূচনা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। উইন্ডিজদের দেওয়া ১২৩ রানের লক্ষ্য ৯৭ বল হাতে রেখেই টপকে যায় তামিম বাহিনী। তামিমের নেতৃত্বে এটিই বাংলাদেশের প্রথম জয়। এর আগে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে নেতৃত্ব দিয়ে হোয়াইটওয়াশের স্বাদ পেয়েছিল তামিম। এছাড়া নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে এক টেস্ট নেতৃত্ব দিয়েও পেয়েছিল হারের স্বাদ।

মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে উইন্ডিজের দেওয়া মামুলি লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে দেখেশুনে খেলতে থাকেন দুই ওপেনার তামিম ইকবাল ও লিটন কুমার দাস। এ দুইজন গড়ে তোলেন ৪৭ রানের জুটি। ১৪ রান করে সাজঘরে ফেরেন লিটন দাস। বহু আলোচনার পর তিন নম্বরে ব্যাটিংয়ে নামা শান্ত অবশ্য এদিন ব্যাট হাতে ব্যর্থ হন। দলীয় ৫৭ রানে মাত্র ১ রান করে সাজঘরে ফেরেন শান্ত।

এ দিন বড় ইনিংস খেলার ইঙ্গিত দেন অধিনায়ক তামিম। তবে ৪৪ রানে ফেরেন তিনি। এরপর ১৯ রান করে আউট হন নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে মাঠে ফেরা সাকিব। তবে এরপর আর কোনো বিপর্যয় হয়নি। পঞ্চম উইকেটে দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেন মুশফিকুর রহীম ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। মুশফিক ১৯ ও রিয়াদ ৯ রানে অপরাজিত থাকেন।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে বাংলাদেশের বোলারদের সাঁড়াশি আক্রমণের মুখে মাত্র ১২২ রানেই থেমে যেতে বাধ্য হলো ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দল। খেলেতে পেরেছে কেবল ৩২ দশমিক ২ ওভার।

রভম্যান পাওয়েলকে ফিরিয়ে দ্রুত এগোনো জুটি ভাঙার পর রেমন রিফারকে ফিরিয়ে দেন হাসান মাহমুদ। টানা দুই বলে উইকেট পাওয়া তরুণ এই পেসারের হ্যাটট্রিক ঠেকিয়ে দেন আলজারি জোসেফ।

ক্রিজে গিয়েই শট খেলতে শুরু করেছিলেন পাওয়েল। তার সঙ্গে দ্রুত জমে যায় কাইল মেয়ার্সের জুটি। তাদের বিচ্ছিন্ন করতে একের পর এক বোলার বদলে যাচ্ছিলেন তামিম ইকবাল। শেষ পর্যন্ত সাফল্য এনে দেন হাসান। তার অফ স্টাম্পের বাইরের বলে মুশফিকুর রহিমের গ্লাভসে ধরা পড়েন পাওয়েল। ভাঙে ৬৩ বল স্থায়ী ৫৯ রানের জুটি।

৩১ বলে দুটি করে ছক্কা ও চারে ২৮ রান করেন পাওয়েল। পরের বলেই রেমন রিফারকে এলবিডব্লিউ করে দেন হাসান। পারে দেখা গেছে বল স্টাম্পের উপর দিয়ে যেত কিন্তু ক্যারিবিয়ানদের ছিল না কোনো রিভিউ। হতাশায় মাঠ ছাড়েন রিফার।

এর আগে ম্যাকার্থিকে বোল্ড করে ঘরের মাঠে ১৫০ তম উইকেট তুলে নিয়েছেন সাকিব আল হাসান। এরপর ১৫১ তম উইকেট হিসেবে তুলে নেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলপতি জেসন মোহাম্মদকে। সাকিব বিরত্বের এখানেই শেষ নয়। ফের তার আক্রমণের শিকার হন এনক্রুমাহ বোনার।

এর আগে ম্যাচের শুরুতেই আঘাত হানেন মোস্তাফিজ। দলীয় ৯ রানেই উইন্ডিজ ওপেনার সুনিল এমব্রিজকে সাজঘরে ফেরান কাটার মাস্টার। এক ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে অসময়ের বৃষ্টির কারণে বন্ধ থাকার পর ম্যাচে ফিরেই জশুয়া ডি সিলভাকে ফেরান সেই মোস্তাফিজুর রহমান। এছাড়া একটি উইকেট পেয়েছেন মেহেদি হাসান মিরাজ।

এর মাধ্যমে ৩২ ওভার ২ বলে সবগুলো উইকেট হারিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সংগ্রহ মাত্র ১২২ রান।

-এমএসআইএস

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here