সাবেক প্রেসিডেন্ট হিসেবে যে সব রাষ্ট্রীয় সুযোগ-সুবিধা পাবেন ট্রাম্প

0
35

গ্রামীণ টাইমস: ডোনাল্ড ট্রাম্প নিজের বিদায়ের দিনটি শুরু করেছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের ৪৫তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে আর শেষ করলেন ফ্লোরিডায় একজন সাধারণ নাগরিক হিসেবে। যদিও সদ্য অবসরে যাওয়া ট্রাম্প সাবেক প্রেসিডেন্ট হিসেবে বেশকিছু রাষ্ট্রীয় সুযোগ-সুবিধা পাবেন।

জানা গেছে, প্রেসিডেন্টের ক্যাবিনেটের সদস্যদের মতো মাসে মাসে বেতন পাবেন ট্রাম্প। আমেরিকার সংবিধানের রীতি অনুযায়ী ২০১৭ সালে এর পরিমাণ ছিল বছরে ২ লাখ ৭ হাজার ৮০০ ডলার (বাংলাদেশি মুদ্রায় যা প্রায় এক কোটি ৭৬ লাখের বেশি টাকা)।

এছাড়া অন্যান্য আর্থিক সুবিধার পাশাপাশি অভিজাত এলাকায় অফিস পরিচালনার জন্য বিশাল জায়গা পাবেন ট্রাম্প, যার সম্পূর্ণ খরচ বহন করবে সরকার। এমনকি এই সুযোগ-সুবিধার আওতায় থাকবে তার পরিবারও। যেমন সিক্রেট সার্ভিসের নিরাপত্তা, ঘোরাঘুরি, টেলিফোন ও যোগাযোগের যাবতীয় খরচ। এছাড়া সাবেক প্রেসিডেন্টের স্ত্রী হিসেবে মেলানিয়া ট্রাম্পও বছরে ২০ হাজার ডলার করে আজীবন পেনশন পাবেন।

উল্লেখ্য, যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে জো বাইডেনের শপথ গ্রহণের মাত্র কয়েক ঘণ্টা আগে ট্রাম্প ও মেলানিয়া হোয়াইট হাউস ছেড়ে যান। বিদায় মুহূর্তে একুশ বার গান স্যালুটের মাধ্যমে তাকে বিদায় জানানো হয়।

আরও পড়ুন : ট্রাম্পের শেষদিনে হোয়াইট হাউসে বাগদান সম্পন্ন করলেন তার ছোট মেয়ের

এরপর তিনি শেষ বারের মতো এয়ারফোর্স ওয়ানে চড়ে বসেন। যদিও বিদায়ের আগে তিনি শেষ সময়ে তার সাবেক উপদেষ্টা স্টিভ ব্যাননসহ ৭৩ জনকে ক্ষমা ঘোষণা করেন।

আরও পড়ুন : জো বাইডেন শপথ নিয়েই ডোনাল্ড ট্রাম্পের একগুচ্ছ সিদ্ধান্তের বদল আনলেন

নতুন প্রশাসন অবশ্য ইতোমধ্যে জানিয়েছে, হোয়াইট হাউস ছাড়ার আগে আধুনিক সময়ের প্রথা মতো নতুন প্রেসিডেন্টের জন্য একটি চিঠি রেখে গেছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। স্থানীয় সময় আটটার দিকে হোয়াইট হাউস ছাড়ার পর হেলিকপ্টারে চেপে অ্যানড্রুজ বিমান ঘাঁটিতে পৌঁছান ডোনাল্ড ট্রাম্প। পরে সেখান থেকে এয়ারফোর্স ওয়ানে করেই পরিবারের সদস্যদের নিয়ে ফ্লোরিডা যান তিনি।

-এমএসআইএস

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here