মেসি ও ফ্র্যাঙ্কি গোলে কোপা দেল রে’র শেষ আটে বার্সা

0
41

গ্রামীণ টাইমস: ম্যাচে প্রথমে পিছিয়ে পড়েও শেষ দিকে লিওনেল মেসি ও ফ্র্যাঙ্কি ডি ইয়ংয়ের গোলে ২-১ ব্যবধানে রায়ো ভায়োকানোকে হারিয়েছে বার্সেলোনা। আর তাতে কোপা দেল রে’র শেষ আটের টিকিট নিশ্চিত হয় কাতালান ক্লাবটির। স্প্যানিশ সুপার কাপের লাল কার্ড দেখে নিষিদ্ধ হওয়ার পর এটিই ছিল মেসির প্রথম ম্যাচ।

স্প্যানিশ ফুটবলের দ্বিতীয় সারির দল রায়ো ভায়োকানোর বিপক্ষে জিততে বেশ ঘাম ছুটে গেছে মেসিদের। নষ্ট হয়েছে বেশকিছু সহজ সুযোগ, বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে গোলপোস্ট ও ক্রসবারও। তবে শেষ পর্যন্ত দলকে জয়ের পথ দেখিয়েছেন লিওনেল মেসিই।

ম্যাচের প্রায় ৭০ শতাংশ সময় বল দখলে রাখার পাশাপাশি আক্রমণেও আধিপত্য করা বার্সেলোনা ২০তম মিনিটে এগিয়ে যেতে পারতো। কিন্তু ডি ইয়ংয়ের শট ক্রসবারে লাগে। দুই ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফেরা মেসির পরক্ষণে নেওয়া শট ঠেকিয়ে দেন গোলরক্ষক দিমিত্রেইভস্কি।

দ্বিতীয়ার্ধের তৃতীয় মিনিটে আবারও ভাগ্যের ফেরে গোল না পাওয়ার হতাশা যোগ হয় বার্সেলোনা শিবিরে। এবার মেসির ডান দিক থেকে নেওয়া ফ্রি কিক ক্রসবারে লেগে ফেরে। ৬১তম মিনিটে আচমকা ওঠা আক্রমণে ভীতি ছড়ায় স্বাগতিকরা। তবে ফ্রান গার্সিয়ার জোরালো শট ঠেকিয়ে দেন বার্সেলোনার দ্বিতীয় পছন্দের গোলরক্ষক নেতো। তবে আর বেশিক্ষণ আটকে রাখতে পারেনি ভায়োকানোকে। ম্যাচের ৬৩ মিনিটের মাথায় দুর্দান্ত এক গোল করে ভায়োকানোকে এগিয়ে নেন আলভারো গার্সিয়া।

এর অবশ্য ছয় মিনিট পরেই সমতায় ফেরে বার্সেলোনা। মাঝমাঠ থেকে সতীর্থের থ্রু পাস অফসাইডের ফাঁদ ভেঙে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে পড়েন গ্রিজম্যান। তাকে বাধা দিতে এগিয়ে যান গোলরক্ষক, সুযোগ বুঝে ডানে বল বাড়ান ফ্রেঞ্চ এই স্ট্রাইকার। আর সেখান থেকে ফাঁকা গোলপোস্টে বল জড়ান মেসি।

এরপর দুর্দান্ত এক আক্রমণে ম্যাচের ৮০ মিনিটের মাথায় জর্দি আলবার বাড়ানো বল জালে জড়ান ডাচ মিডফিল্ডার ফ্র্যাঙ্কি ডি ইয়ং। আর তাতেই ২-১ গোলের ব্যবধানে জয় নিশ্চিত হয়ে বার্সার। সেই সঙ্গে নিশ্চিত হয় কোপা দেল রের কোয়ার্টার ফাইনালও।

-এমএসআইএস

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here