অফিস সহকর্মীর সঙ্গে প্রেম না করাই ভালো

0
30

গ্রামীণ টাইমস: অফিসে একসঙ্গে কাজের সুবাদে সহকর্মীর সঙ্গে বন্ধুত্ব হওয়াটা স্বাভাবিক। তবে অনেক সময় সেই বন্ধুত্ব আর বন্ধুত্ব থাকে না, প্রেমে গড়ায়। কখনো কখনো বিয়ে পর্যন্ত গড়ায় এই প্রেম। কিন্তু এই প্রেম কি ঠিক? অফিস সহকর্মীর সঙ্গে প্রেমের ক্ষেত্রে ভবিষ্যৎ জীবন বিষাক্ত হয়ে ওঠে যেতে পারে। এ কারণে অফিস সহকর্মীর সঙ্গে প্রেম না করাই ভালো।

অফিস সহকর্মীর সঙ্গে প্রেম করলে অন্যান্য সহকর্মীদের জন্য সমস্যা তৈরি হয়। অধিকাংশ সহকর্মীই বিষয়টি ভালো দৃষ্টিতে দেখেন না। বরং অফিসের সিনিয়র কর্তারা জুটির প্রতি বিদ্বেষমূলক মনোভাব পোষণ করেন। অফিস কাজের জায়গা। যেখানে মেধা ও পরিশ্রম দিয়ে কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের হয়ে কাজ করতে হয়। বিনিময়ে পারিশ্রমিক পেয়ে থাকেন। অফিসে কাজ করতে এসে সহকর্মীর সঙ্গে প্রেমে জড়ানোটা অনেকে কাজ ফাঁকি দেওয়ার সামিল বা নৈতিকতায় সমস্যা হিসেবে নিয়ে থাকেন। কাজের পরিবেশকেও বিষিয়ে তোলে এই সমস্যা।

সহকর্মীর সঙ্গে প্রেম হলে কোনো স্বাধীনতা বা নিজ সত্ত্বা থাকে না। অফিস আওয়ারে যার সঙ্গে সময় কাটাচ্ছেন তার সঙ্গেই যদি বাকি ১৬ ঘণ্টা কাটাতে হয় তাহলে ব্যক্তিগত মুহূর্ত বের করা সত্যিই কঠিন। অনেক ক্ষেত্রে সহকর্মীর সঙ্গে প্রেমের পর তা দীর্ঘদিন টিকে উঠে না। যে কারণে বিবাহ বিচ্ছেদের ঘটনা থেকে চাকরি পর্যন্তও ছাড়তে হয় অনেকের। এসব হওয়ার পর আত্মসম্মান নিয়ে না ভেবে বিয়ে বা প্রেম করার আগে দ্বিতীয়বার থেকে চিন্তাভাবনা শুরু করুন।

অনেক সময় দেখা যায় সহকর্মীর সঙ্গে প্রেমে ইগোতে সমস্যা দেখা যায়। দুজনের মধ্যে সমান যোগ্যতায় একজনের বেতন কম হলে সে ঈর্ষান্বিত হবেন এটাই স্বাভাবিক। কেউ কেউ নিজের প্রমোশনের জন্যও প্রেম করে। অনেকে আবার বিপরীত মানুষটির বেতন বেশি বা তার উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ দেখে প্রেমে জড়ায়। এখানে মূলত কোনো ভালোবাসা থাকে না; কারও মাধ্যমে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করা বা নিজের ক্যারিয়ার গড়ে নেওয়া থাকে মূল লক্ষ্য।

একই অফিসে সহকর্মীর সঙ্গে সম্পর্কে জড়ালে বিষয়টি এক সময় প্রকাশ্যে আসবেই। কারণ কাজের ঘাটতি বুঝতে খুব বেশি সময় লাগে না প্রতিষ্ঠানের। সম্পর্কে থাকা জুটির চাকরি পর্যন্ত চলে যেতে পারে। দুজন একই অফিসে কাজ করার সুবাধে বিপরীত মানুষটির প্রতি মনোযোগী হয়ে যাওয়ায় কাজে বিঘ্ন ঘটে। আবার সঙ্গী সামনে থাকা অবস্থায় কাজে কোনো মনোযোগ থাকে না। যারা অফিস সহকর্মীর সঙ্গে প্রেম করেন তারা এ বিষয়কে সবসময়ই অস্বীকার করেন। তবে সবচেয়ে উত্তম হচ্ছে অফিস সহকর্মীর সঙ্গে প্রেম না করা।

সূত্র : ফেমিনা

-এমএসআইএস

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here