ডোনাল্ড ট্রাম্প আবার ক্ষমতায় আসতে পারেন!

0
33

গ্রামীণ টাইমস: যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ৬ জানুয়ারি ক্যাপিটলের দাঙ্গা উস্কে দিয়েছিলেন অভিযোগ করে ডেমোক্র্যাটরা বলছেন, দোষী সাব্যস্ত না হলে তিনি আবার ক্ষমতায় আসতে পারেন এবং একই ধরনের কাজ করতে পারেন। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদন থেকে এসব কথা জানা গেছে।

বর্তমান প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের বিজয় অনুমোদনের দিনে যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেস ভবন ক্যাপিটলে ট্রাম্প সমর্থকদের হামলা ও পরে সৃষ্ট দাঙ্গায় একজন পুলিশ সদস্যসহ পাঁচ জন নিহত হন। দাঙ্গা উস্কে দেওয়ার অভিযোগ এনে জানুয়ারিতে ট্রাম্পকে অভিশংসিত করে মার্কিন কংগ্রেসের ডেমোক্র্যাট নিয়ন্ত্রিত প্রতিনিধি পরিষদ। ওই পরিষদ থেকে আসা আইনপ্রণেতারা চলতি সপ্তাহে সিনেটরদের কাছে তাদের মামলা উপস্থাপন করেছেন।

বৃহস্পতিবার মার্কিন কংগ্রেসের উচ্চকক্ষ সিনেটে ট্রাম্পের অভিশংসনের বিচারে ডেমোক্র্যাট কৌঁসুলিরা তাদের বক্তব্য তুলে ধরেন। সহিংসতার সঙ্গে ট্রাম্পের সম্পর্ক তুলে ধরতে তারা দাঙ্গাকারীদের বলা কথাকে সামনে এনেছেন। পাশাপাশি মামলা এগিয়ে নিতে ডেমোক্র্যাটরা পুলিশ, ক্যাপিটলের কর্মী, গোয়েন্দা কর্মকর্তা ও বিদেশি সংবাদমাধ্যমের বর্ণনাও উপস্থাপন করেছেন। এই দাঙ্গায় দীর্ঘমেয়াদি ক্ষতি হয়েছে বলেও দাবি করেছেন তারা। নিজেদের চূড়ান্ত বক্তব্য হিসেবে তারা বলেছেন, ট্রাম্প সম্পদ, জনগণ ও গণতন্ত্রের ক্ষতি করেছেন।

ডেমোক্র্যাটদের বক্তব্য, ট্রাম্পকে যদি অভিশংসন করা না হয়, তাহলে ভবিষ্যতে আবার তিনি ভোটে দাঁড়াতে পারবেন এবং জয়ী হয়ে ফের মার্কিন প্রেসিডেন্টও হতে পারবেন। সে ক্ষেত্রে ফের মার্কিন গণতন্ত্র প্রশ্নের মুখে পড়বে। ফলে সে কারণেই তার অভিশংসন প্রয়োজন।

নিজের পদক্ষেপের জন্য ট্রাম্প কোনো অনুশোচনা প্রকাশ করেননি উল্লেখ করে ডেমোক্র্যাট প্রতিনিধি ট্রেড লিউ বলেছেন, ‘যেহেতু অভিশংসন, দোষী সাব্যস্ত করা ও অযোগ্য ঘোষণা করা শুধু অতীতের বিষয়ের সঙ্গেই সম্পর্কিত নয়, এটি ভবিষ্যতের সঙ্গেও সম্পর্কিত, তাই কোনও ভবিষ্যৎ কর্মকর্তা, কোনও ভবিষ্যৎ প্রেসিডেন্ট যেন একই কাজ না করতে পারেন তা নিশ্চিত করা দরকার।’

প্রতিনিধি পরিষদের কৌঁসুলি ডেভিড সিসিলিনি জানান, কিছু দাঙ্গাকারী স্বীকার করেছে তারা ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স ও প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসিকে খুন করার পরিকল্পনা করেছিল আর আইনপ্রণেতারা যেখানে লুকিয়ে ছিলেন সেই বেইসমেন্ট ‘সিল’ করে দিয়ে ‘গ্যাস চালু করে দেওয়ার’ কথা বলাবলি করছিল অন্যরা। তিনি বলেন, “আমাদের কেউ কখনো কল্পনাও করেনি যে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের পাঠিয়ে দেওয়া একদল দাঙ্গাবাজের কারণে আমরা মৃত্যুর ঝুঁকিতে পড়তে পারি।”

ডেমোক্র্যাট কৌঁসুলিদের যুক্তিপর্ব শেষ হওয়ার পর সাবেক প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের আইনজীবীরা শুক্রবার তাদের যুক্তি তুলে ধরবেন। ট্রাম্পের আইনজীবীরা বলতে চাইছেন, গত নভেম্বরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনকে জালিয়াতিপূর্ণ বলে ঘোষণা করার সময় ট্রাম্প তার বাক স্বাধীনতার অধিকার ব্যবহার করেছেন।

ট্রাম্পকে দোষী সাব্যস্ত করতে ১০০ আসনের সেনেটের দুই-তৃতীয়াংশ সদস্যের সমর্থন প্রয়োজন হবে। কিন্তু সিনেটে ডেমোক্র্যাট ও রিপাবলিকান দলের আসন সংখ্যা ৫০-৫০ হওয়ায় এ ক্ষেত্রে ডেমোক্র্যাট সদস্যের সঙ্গে আরও অন্তত ১৭ জন রিপাবলিকান সদস্যের সমর্থন লাগবে। এখনও পর্যন্ত রিপাবলিকান সিনেটরদের অধিকাংশই ট্রাম্পের প্রতি বিশ্বস্ত থাকায় সেটি সম্ভব হবে না বলে ধারণা করা হচ্ছে। সে ক্ষেত্রে ট্রাম্প খালাস পাবেন। তারপরও ট্রাম্প যদি দোষী সাব্যস্ত হন তবে সেনেট তাকে ফের নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার ক্ষেত্রে অযোগ্য ঘোষণার পক্ষে ভোট দিতে পারে।

-এমএসআইএস

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here